শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১০:১১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ভোলাহাট ২ নং গোহালবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালিত নাচোল ৪নং নেজামপুর ইউনিয়ন পরিষদে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালিত চুরি যাওয়া মিটার উদ্ধারসহ যুবক আটক গোমস্তাপুর ৪নং পার্বতীপুর পরিষদে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালিত শিবগঞ্জ ছত্রাজিতপুর ১৬ নং পরিষদে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালিত স্থানীয় সরকারই হবে স্মার্ট বাংলাদেশের ভিত্তি : জেলা প্রশাসক শিবগঞ্জ ছত্রাজিতপুর ১৬ নং ইউনিয়ন পরিষদে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালিত চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৩ নং ঝিলিম পরিষদে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালিত রোজার আগে চিনির দাম বাড়ল কেজিপ্রতি ২০ টাকা আজ পুলিশ সপ্তাহ-২০২৪ শুরু, উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

বিয়ের দেনমোহর যখন মাত্র এক টাকা

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৮ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৯২৬ বার পঠিত
বিয়ের দেনমোহর যখন মাত্র এক টাকা
ফটো সংগৃহীত
ফরিদপুর সংবাদদাতা : ফরিদপুরে কনে ও তার পরিবারের প্রস্তাবে এক টাকা দেনমোহরে কাবিন ও বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে।
শুক্রবার শহরের ঝিলটুলী মহল্লার মেজবান পার্টি সেন্টারে এ বিয়ের আয়োজন করা হয়।কনে বিপাশা আজিজ (২৫) মাদারীপুরের সাহেবের চর মহল্লার আজিজুল হক ও নাসরিন সুলতানার মেয়ে। এ দম্পতি ফরিদপুর শহরের আলীপুর মহল্লায় বসবাস করেন। আর বিপাশা ঢাকার একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত।ব্যবসায়ী বর আশীকুজ্জামান চৌধুরী (৩০) শহরের কুঠিবাড়ি কমলাপুর মহল্লার আসাদুজ্জামান চৌধুরী ও তাহমিনা চৌধুরীর ছেলে।বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশ নেয়া প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আর্থিকভাবে স্বচ্ছল কনে আগে থেকেই ঠিক করে রেখেছিলেন বিয়ের কাবিনে এক টাকা দেনমোহর ধরবেন। কিন্তু আজ বিয়ের অনুষ্ঠানে কাজি দেনমোহর দুই লাখ টাকা লেখেন। এ ঘটনা জানার পর মা মেয়ের সিদ্ধান্ত জানিয়ে এক টাকা দেনমোহর লেখান।অনুষ্ঠানে হাজির থাকা ফরিদপুর নাগরিক কমিটির সভাপতি আওলাদ হোসেন বলেন, সাধারণত দেখা যায় কনেপক্ষই দর কষাকষি করে কাবিনের সময় দেনমোহর বাড়ানোর চেষ্টা করে থাকে। সে ক্ষেত্রে আজকের এটি এক ব্যতিক্রম ঘটনা এবং পাশাপাশি এটি আর্থিকভাবে স্বচ্ছল এক নারীর আত্মমর্যাদা রক্ষার প্রতীকও বটে।তবে এক টাকা দেনমোহর নির্ধারণে দ্বিমত পোষণ করেছেন নারী নেত্রী ফরিদপুর ব্লাস্টের সমন্বয়কারী শিপ্রা গোস্বামী। তিনি বলেন, মুসলিম বিয়ে একটি চুক্তি। মোহরানা নারীর হক। স্বামীর আর্থিক সংগতি ও নারীর সামাজিক অবস্থানের ভিত্তিতে দেনমোহর নির্ধারিত হয়ে থাকে।তিনি বলেন, মোহরানার ব্যাপারে আবেগের কোনো স্থান নেই। আবেগের বশে মোহরানায় এক টাকা লেখা যেতে পারে কিন্তু এটি মোটেও বাস্তবসম্মত নয়। কেননা নারী বর্তমানে সচ্ছল হতে পারেন কিন্তু আগামীতেও তিনি সচ্ছল নাও থাকতে পারেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved © 2009-2022 bddhaka.com  # গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রনালয়ের বিধি মোতাবেক নিবন্ধনের জন্য আবেদিত # এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Theme Developed BY ThemesBazar.Com