1. bddhaka2009bd@gmail.com : FARUQUE HOSSAIN : FARUQUE HOSSAIN
  2. bddhakanews24.com@gmail.com : admi2017 :
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৩:৫৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :

বান্দরবান রিজিয়ন কমান্ডার এর সাথে তাইংখালী এলাকাবাসী ও জনপ্রতিনিধির মত বিনিময় সভা

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২০ জানুয়ারী, ২০২১
  • ২৪২ বার পঠিত

রিমন পালিত: বান্দরবান প্রতিনিধি: বান্দরবান রিজিয়ন কমান্ডার এর সাথে তাইংখালী এলাকাবাসী ও জনপ্রতিনিধির এক মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ ২০ জানুয়ারি বুধবার সকাল ১১ টায় বান্দরবান জোন সদরের মাল্টিপারপাস শেড এ বান্দরবান রিজিয়ন এর রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ জিয়াউল হক, এনডিসি, এএফডব্লিউসি, পিএসসি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে তাইংখালী এলাকাবাসী ও জনপ্রতিনিধির সাথে এই মত বিনিময় সভায় অংশগ্রহণ করেন। উক্ত সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন ডিটাচমেন্ট কমান্ডার, ডিজিএফআই বান্দরবান; শাখা অধিনায়ক, এএসইউ, বান্দরবান; জোন কমান্ডার বান্দরবান জোন,বান্দরবান সদর উপজেলার চেয়ারম্যান এ কে এম জাহাঙ্গীর আলম, বান্দরবান, বান্দরবান জেলা পরিষদের সদস্য চিং ই অং ম্রো , উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পাই হ্লা অং মার্মা , বান্দরবান সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান মিঃ রাজু মার্মা, ১নং রাজভিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কে অং প্রু মার্মা, সদর উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি উ চিং নু মার্মা, ৫নং ওয়ার্ড, রাজভিলা ইউনিয়নের মেম্বার মংয়াহিনু মার্মা, টাইংখালীপাড়া রাজভিলার কারবারি উচিং মার্মা, মতবিনিময় সভায় রিজিয়ন কমান্ডার সম্প্রীতির বান্দরবানের গৌরবজ্জবল ঐতিহ্য ও ইতিহাস সকলের সামনে পূনরায় ব্যক্ত করেন। এসময় তিনি বলেন সম্প্রীতির বান্দরবানে প্রশাসন ও জনগনের মাঝে এক ভ্রাতৃত্ব পূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে। যেখানে নেই কোন মারামারি , নেই কোন হানাহানি। কিন্তু একটা কুচক্রী মহল সম্প্রতি বান্দরবানের এ ভ্রাতৃত্ব পূর্ণ সম্পর্কটাকে নষ্ট করার জন্য বিভিন্ন চক্রান্তমূলক কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। যাতে করে সম্প্রীতির বান্দরবানে অশান্তি তৈরি হয়। তারা পাহাড়ি-বাঙালি ও প্রশাসনের মাঝে বিরোধ তৈরি করে বান্দরবানের সুন্দর পরিবেশকে অশান্ত করে তোলার চেষ্টা করছে। গত ১৭ জানুয়ারি সেনাসদস্য কর্তৃক অনাকাঙ্খিত ঘটনার জন্য সকলের নিকট দুঃখ প্রকাশ করেন এবং এ ঘটনার সাথে জড়িত ব্যক্তি কে দ্রুত আইনের আওতায় এনে শাস্তি প্রদানের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে আশ্বাস প্রদান করেন। এছাড়াও গত ১৯ জানুয়ারি সেনাবাহিনীর সাথে এলাকাবাসীর ভূল বোঝাবোঝিকে তৃতীয় পক্ষের চক্রান্ত বলে উল্লেখ করেন। জনগণের সাথে প্রশাসনের দূরত্বের সুযোগ নিয়ে তৃতীয় পক্ষ যেন এই ধরনের সুযোগ নিতে না পারে সেদিকে সতর্ক থাকার জন্য সকলকে আহবান করেন। পরবর্তীতে তাইংখালী গ্রামবাসীরাও তাদের ভূলের কথা স্বীকার করে সভায় আগত সকলের সাথে রিজিয়ন কমান্ডার মধ্যাহু ভোজে অংশগ্রহণ করেন। ভিকটিম পরিবারের সাথে রিজিয়ন কমান্ডার কথোপকথন করেন এবং ভিকটিম পরিবারের মাঝে শুভেচ্ছা উপহারসহ নগদ আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন। তাইংখালী ইউনিয়ন হতে আগত সকল সদস্যদের মাঝে উপহার স্বরূপ অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোন, পরিধেয় পোষাক ও টাকা প্রদান করেন। পরিশেষে আরো বলেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী দেশের সেবায় নিয়োজিত। দেশমাতৃকার উন্নয়নে সব সময় পার্বত্য অঞ্চলে বিভিন্ন সেবা প্রদান করে উন্নয়নের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। সেজন্য তিনি সকলকে দেশমাতৃকার উন্নয়নে মিলেমিশে সকল বৈষম্য বোধ ভুলে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান । যাতে সমপ্রীতির বান্দরবান সকলের কাছে এক মডেল জেলা হিসেবে পরিণত হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved © 2009-2022 bddhaka.com  # গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রনালয়ের বিধি মোতাবেক নিবন্ধনের জন্য আবেদিত # এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Theme Developed BY RushdaSoft